মঙ্গলবার  ২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং  |   মঙ্গলবার  ১১ই আশ্বিন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

এইমাএ পাওয়া

সুন্দরগঞ্জে ৭শ পরিবার নদী গর্ভে বিলীনঃভাঙ্গন যেন থামছেই না

আগস্ট ১৬, ২০১৬

সুন্দরগঞ্জ

মোঃ নুরে শাহী আলম (লাবলু) জেলা প্রতিনিধি গাইবান্ধা

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার তারাপুর, বেলকা, হরিপুর, কাপাসিয়া, শ্রীপুর, কঞ্চিবাড়ি ও চন্ডিপুর ইউনিয়ন দিয়ে প্রবাহিত তিস্তা নদীর খর স্রোতাতে ২৫টি পয়েন্টে প্রবল ভাঙ্গন অব্যাহত রয়েছে। এ পর্যন্ত ৭শ পরিবারের বসত-ভিটা, আবাদি জমি, গাছ-পালা, রাস্তা-ঘাট নদী গর্ভে বিলীন হয়েছে। হুমকির মুখে পড়েছে আরো শ’ শ’ পরিবারের বসত-ভিটা, রাস্তা-ঘাট, আবাদী জমি।

ভাঙ্গন কবলিত এসব স্থানগুলোর মধ্যে রয়েছে- ভাটি বুড়াইল, উজান বুড়াইল, পূর্ব লালচামার, বোচাগাড়ি, ভাটি বোচাগাড়ি, পোড়ার চর, উত্তর শ্রীপুর ও দক্ষিণ শ্রীপুর, চর মাদারীপাড়া, হাজারীর হাট, উজান তেওড়া, পাড়া সাদুয়া, চর চরিতাবাড়ি, রাঘব, লখিয়ারপাড়া, বেলকা নবাবগঞ্জ, কিশামত সদর, পঞ্চানন, জিগাবাড়ি, বেকরির চর, ছয় ঘড়িয়া, খালির খামার, হরিপুর খেয়াঘাট। এসব স্থান ছাড়াও আরো কয়েকটি পয়েন্টে নদীর গতিপথ নতুন ধারণ করায় দেখা দিয়েছে ভাঙ্গন। ভাঙ্গন কবলিত পরিবার গুলো বর্তমানে খোলা আকাশের নিচে দুর্বিসহ দিনাতিপাত করছেন। অনেকেই আশ্রয় নিয়েছেন বিভিন্ন আশ্রয় কেন্দ্রে। হুমকির মুখে পড়ায় এসব ভাঙ্গন কবলিত পরিবার ঘর বাড়ি সরিয়ে নিয়ে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধসহ বিভিন্ন স্থানে আশ্রয় নিচ্ছেণ।

এ পর্যন্ত ভাঙ্গন কবলিত ৬’৫০টি পরিবারের তালিকা অফিসে জমা হয়েছে। এসকল পরিবার প্রতি ১ হাজার করে নগদ অর্থ প্রদান করা হয়েছে। ভাঙ্গন কবলে এ পর্যন্ত ২ কোটিরও অধিক পরিমাণ টাকার ক্ষতি সাধিত হয়েছে বলে উপজেলা দুর্যোগ ও ত্রাণ ব্যবস্থাপনা দপ্তর সুত্র জানা গেছে।
১৬ই আগস্ট, ২০১৬ ইং