শুক্রবার  ২৭শে এপ্রিল, ২০১৮ ইং  |   শুক্রবার  ১৪ই বৈশাখ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

এইমাএ পাওয়া

সিদ্ধিরগঞ্জে সন্ত্রাসী আহাদ বাহিনীর সাথে হিজড়াদের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া, সংঘর্ষঃআহত ৩

আগস্ট ৬, ২০১৬

সিদ্ধিরগঞ্জে সন্ত্রাসী আহাদ বাহিনী

স্টাফ রিপোর্টার/
সিদ্ধিরগেঞ্জ সন্ত্রাসী আহাদ বাহিনীর সঙ্গে হিজড়াদের (তৃতীয় লিঙ্গ) সাথে দেশীয় অস্ত্র ও লাঠিসোটা নিয়ে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় ৩ জন হিজড়া আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে নুপুর ও মরজিনার নাম জানা গেছে। তাদেরকে স্থানীয় একটি ক্লিনিকে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। খবর পেয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) ওমর ফারুক ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। পরে স্থানীয়রা উভয়পক্ষকে নিয়ে বিষয়টি মিমাংসা করবে বলে জানালে পুলিশ ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। সিআই খোলা বউ বাজার এলাকা থেকে হিজড়া নুপুরের কাছ থেকে ১ভরির একটি স্বর্নের একটি চেইন, নগদ ৩৫ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়ার জের ধরে শনিবার দুপুর সাড়ে ৩টার দিকে এ ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। যে কোন মূহুর্তে সন্ত্রাসী আহাদ বাহিনীর সাথে হিজড়াদের রক্তক্ষয়ই সংঘর্ষ হতে পারে বলে আশংকা করছেন এলাকাবাসী।

প্রত্যক্ষদশীরা জানান, সন্ত্রাসী আহাদ শনিবার দুপুরে সিআই খোলা এলাকায় হিজড়া নুপুরের কাছ থেকে ১ভরি একটি স্বর্নের একটি চেইন, নগদ ৩৫ হাজার টাকা ছিনতাই করে। পরে এ ঘটনায় নুপুর প্রতিবাদ করলে আহাদ ও তার বাহিনীর সদস্যরা নুপুরকে পিটিয়ে আহত করে। খবর পেয়ে হিজড়ারা সংগঠিত হয়ে সিআই খোলা আসলে আহাদ ও তার বাহিনীর সদস্যরা দেশী অস্ত্র রামদা, চাপাতি, হকি ও ছোড়া নিয়ে হিজড়াদের উপর হামলা চালায়। এতে নুপুর, মরজিনা সহ ৩ জন আহত হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানায়,আহাদ স্থানীয় এক শিল্পপতির নাম ভাঙ্গিয়ে এলাকায় সন্ত্রাসী কর্মকান্ড, মাদক ব্যবসা ও ছিনতাই করে থাকে। প্রকাশ্যে অস্ত্র নিয়ে এলাকায় ঘুরে বেড়ায় আহাদ। তার রয়েছে ২০/২৫ জনের একটি বাহিনী। তারা দিনেরাতে ছিনতাই, মাদক ব্যবসাসহ নানা অপরাধ কর্মকান্ড করে থাকে। প্রতিদিন রাত সাড়ে ৮ টার পর থেকে গভীর রাত পর্যন্ত হাজী নুর উদ্দিন চত্তর, সিআই খোলা এলাকা দিয়ে চলাচলরত গার্মেন্টকমী, ব্যবসায়ী সাধারন মানুষদের মোবাইল, টাকা, স্বর্নালংঙ্কার ছিনতাই করে থাকে। আহাদের বিরুদ্ধে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় অস্ত্র, মারামারি, ছিনতাই, মাদকসহ একাধিক মামলা রয়েছে। সন্ত্রাসী আহাদের অপরাধ মূলক কর্মকান্ডে এ এলাকাটি অপরাধ ও অপরাধীদের অভয়ারন্য হিসাবে পরিচিত লাভ করেছে।

আহাদের দূধর্ষ কর্মকান্ড ও প্রভাবশালী শিল্পপতির লোক পরিচয় দেয়ায় এলাকাবাসী ভয়ে এর প্রতিবাদ করতে সাহস পায়না। এলাকাবাসী আহাদ ও তার বাহিনীর হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য র‌্যাব ১১ ও জেলা পুলিশ সুপার মহোদয়ের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
নারায়নগঞ্জ/৬ই আগস্ট, ২০১৬ ইং