বৃহস্পতিবার  ২৬শে এপ্রিল, ২০১৮ ইং  |   বৃহস্পতিবার  ১৩ই বৈশাখ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

এইমাএ পাওয়া

সিদ্ধিরগঞ্জে নাসিকের দুটি রাস্তার বেহালদশা-বছর জুড়ে সড়কে পানি, জনদূর্ভোগে জনগণ

আগস্ট ১, ২০১৬

রাস্তার বেহালদশা

এমরান আলী সজীব/
নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের সিদ্ধিরগঞ্জে দুটি রাস্তার বেহাল দশার কারণে চরম ভোগান্তি পেহাতে হ”েছ ওই সড়ক দুটি দিয়ে যাতায়াত করা লাখো মানুষের। নাসিক ১নং ওয়ার্ডের সিআইখোলা-হাজী নুর উদ্দিন চত্ত্বর সড়ক ও ৬নং ওয়ার্ডের শিমুল পাড়া রেইললাইন এলাকার সড়ক দুটির গত চার বছর যাবৎই এই বেহাল দশা। সংস্কারের অভাবে সড়কগুলোতে বছর জুড়েই জমে থাকে পানি। এতে সড়কগুলোর বিভিন্ন জায়গায় বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এছাড়া বর্ষা মৌসুমে একটানা বৃষ্টি হলে সড়ক দুটি হাটু পানির নীচে তলিয়ে থাকে। ফলে স্কুল/কলেজের শিক্ষার্থী, গার্মেন্ট কমী, নারী, শিশু, বৃদ্ধরা ঝুকি নিয়ে এ সড়ক দিয়ে চলাচল করছে। সড়কে বড় বড় গর্তের কারনে প্রায় সময়ই কোন না কোন দূর্ঘটনা ঘটছে। এদিকে সড়কে জমে থাকা পানির সাথে এলাকার সুয়ারেজের পানি ও বর্জ মিশে পানি বিষাক্ত হয়ে উঠছে। এ বিষাক্ত পানির কারনে ডায়রিয়া, কলেরা, ঘা পাঁচড়াসহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হ”েছ এলাকাবাসী। এতে এলাকাবাসীর দূর্ভোগ ক্রমেই বেড়ে চলছে।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, অত্র এলাকায় প্রায় দেড় লক্ষাধীক লোক বসবাস করে। ১নং ওয়ার্ডের ওই রাস্তার বেহাল দশার কথা একাধিকবার ¯’ানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুর রহিমকে জানানোর পরও তিনি দীর্ঘ ৪ বছরে এর সংস্কারের কোন উদ্যোগ নেননি। কয়েকমাস আগে এলাকাবাসীর উদ্যোগে অত্র এলাকার শিল্পপতি ও শিক্ষানুরাগী আনোয়ার ইসলামের সহায়তায় সড়কে ২২ গাড়ি কংক্রিট ও ১৫ গাড়ি বালু ফেলে কিছুটা চলাচলের উপযোগী করা হয়েছিল। কিš’ গত কয়েকদিনের টানা বর্ষনে সড়কের বালু সড়ে গিয়ে ফের সড়ক পূর্বাব¯’ায় ফিরে আসে। সিটি করপোরেশনের উদাসিনতার কারনেই এ চরম দূর্ভোগ ও সড়কের বেহালদশা বলে মনে করছেন ¯’ানীয় বাসিন্দারা। তারা আরো অভিযোগ করেণ কাউন্সিলর আব্দুর রহিম গত সাড়ে ৪ বছরেও সিআই খোলায় আসেনি। তিনি এলাকাটির উন্নয়নে কোন ভুমিকা রাখেন নাই। বর্তমানে অনেক সম্ভাব্য কাউন্সিলর প্রার্থীরা বিভিন্ন এলাকায় গনসংযোগ করলেও কোন প্রার্থী এখন পর্যন্ত সিআই খোলা ও হাজী নুর উদ্দিন চত্ত্বর এলাকায় আসেনি। মেয়র আইভি একবার এসে পরিদর্শন করে সংস্কারের আশ্বাস দিলেও তিনি এ বিষয়ে এখনো কেনো কোন উদ্যোগ নেননি তা আমাদের বোধগম্য নয়।

হাজী নুর উদ্দির চত্ত্বর এলাকার বাসিন্দা হোসেন পারভেজ জানান, নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন এর কোন সুযোগ সুবিধা এলাকার বাসিন্দারা পায়নি। ¯’ানীয় কাউন্সিলর আঃ রহিমকে এলাকাবাসী বারবার বলার পরেও তিনি রাস্তা সংস্কার করেনি। সারা বছর এ রাস্তাটি পানির নিচে তলিয়ে থাকে। তার উপর সামান্ন্য বৃষ্টি হলে চলাচলে অনুপযোগী হয়ে পরে। চরম র্দুভোগে পরি আমরা। স্কুল/কলেজের শিক্ষার্থীরা হাটু পানির দিয়ে চলাচল করে। তার উপর পানির দূর্গন্ধের কারনে বাসা বাড়িতে লোকজন থাকতে পারেনা। এদিকে এলাকাবাসী জানান,

এ বিষয়ে ১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আঃ রহিম মেম্বার বলেন, কয়েক দিনের মধ্যে রাস্তাটির কাজের টেন্ডার হবে বলে আশা রাখছি।

অপর দিকে নাসিক ৬ নং ওয়ার্ড সিমুলপাড়া মহল্লাটি ১০ দিন ধরে পানির নিচে তলিয়ে রয়েছে। সিমুলপাড়া আদমজী বাজার এলাকার দক্ষিনপাশের রাস্তাটি দিয়ে এলাকাবাসী নৌকা নিয়ে চলাচল করছে। চরম দূর্ভোগের মধ্যে বসবাস করছে এলাকার মানুষ। ব্যবসা বানিজ্য করতে পারছেনা এ মহল্লার বাসিন্দারা। স্কুল/কলেজে যেতে হ”েছ কোমর পানির বা নৌকা দিয়ে পার হয়ে।

এদিকে আদমজী ডিএনন্ডি ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি লিটন আহমেদ জানান, পানির নিচে আছি ভাই, একটা নৌকা পাঠান বাজারে আসি। ১০ দিন ধরে পানির নিছে আছি ব্যবসা করতে পারছিনা। পানি সরছেনা। ছেলে মেয়েরা স্কুল/কলেজে যেতে পারছেনা। পানি সরানোর ব্যব¯’া করা না হলে দেখবেন মহাল্লাবাসী রাস্তায় উঠে আন্দোলন করবে।

এ ব্যাপারে ৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সিরাজুল ইসলাম বলেন, পানি নিস্কাশনের খালটি দখল করায়, বৃষ্টির পানি সরতে না পারায়, দেশের বিভিন্ন নদনদীর পানি বৃদ্ধির কারনে ও শীতলক্ষ্যা নদীর পানি বৃদ্ধি হওয়ার এ জলাবদ্ধাতার সৃষ্টি হয়েছে। নদীর পানি কমলে মহল্লাটির পানিও কমবে। তবে সড়কটি সিটি কর্পোরেশনের আওতাধীন না হওয়ায় সিটি করপোরেশনের কত..র্.পক্ষ এটি সংস্কার করতে পারছেনা।
নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি/ সোমবার ১লা আগস্ট, ২০১৬ ইং / ১৭ই শ্রাবণ, ১৪২৩ বঙ্গাব্দ