শুক্রবার  ২৭শে এপ্রিল, ২০১৮ ইং  |   শুক্রবার  ১৪ই বৈশাখ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

এইমাএ পাওয়া

যশোরে র‍্যাব পরিচয়ে যুবলীগ নেতাকে তুলে নেওয়ার অভিযোগ

জুলাই ২৬, ২০১৬

যশোর

এ এম রাকিব/ 

যশোরে র্যাব পরিচয়ে বাড়ি থেকে তুলে নেওয়ার পর আবু তাহের নামে এক যুবলীগ কর্মীর হদিস পাচ্ছে না তার পরিবার। সোমবার দুপুরে যশোর প্রেসক্লব মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে তাহেরের পরিবারের পক্ষ থেকে এ অভিযোগ করা হয়ে। আবু তাহের যশোর সদর উপজেলার বালিয়া ভেকুটিয়া গ্রামের মৃত আবদুল কাদেরের ছেলে।

সংবাদ সম্মেলনে তাহেরকে যুবলীগের একজন সক্রিয় কর্মী দাবি করে তার স্ত্রী নাজমা বেগম দাবি করেন, গত
২১ জুলাই সাদা পোশাকের একদল লোক তাহেরকে বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে যায়।এসময় নাজমা বেগম জানতে চাইলে তারা নিজেদের র্যাবের লোক বলে পরিচয় দেন এবং র্যাবের কার্ডও দেখান। নাজমা বেগম বলেন, পরে যশোর র্যাব অফিসে যোগাযোগ করা হলে সেখান থেকে তাহেরকে আটকের কথা অস্বীকার করাহয়। এরপর থানা, ডিবি পুলিশসহ সবজায়গাতেই যোগাযোগ করা হয়। কিন্তু কোনো খানেই তাহেরের খোঁজ পাওয়া যায়নি। মা আমেনা বেগম বলেন, তাহের কোনো অপরাধ করে থাকলে তার বিচার করা হোক। কিন্তু সে বেঁচে আছে না মরে গেছে। সেটাও তো আমরা জানতে পারছি না।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন তাহেরের শ্যালকের ছেলে ফয়সাল ইসলাম। এতে বলা হয়, সদর উপজেলার দেয়াড়া ইউনিয়নে বিএনপি নেতা জিয়া হত্যা মামলায় প্রথমে তাহের কে আসামি করা না হলেও পরে চার্জশিটে তাকে অভিযুক্ত করা হয়েছিল। তাছাড়া যুবলীগ করায় বিএনপি ক্ষমতায় থাকার সময় তার বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি পেন্ডিং মামলাও দিয়েছিল পুলিশ। তার পায়ে একবার গুলিও করা হয়েছিল। তাহের যদি সত্যিই দোষ করে থাকেন তাহলে প্রচলিত আইনে তার বিচার হোক।
যশোর প্রতিনিধি/২৬শে জুলাই, ২০১৬ ইং