মঙ্গলবার  ২৪শে এপ্রিল, ২০১৮ ইং  |   মঙ্গলবার  ১১ই বৈশাখ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

এইমাএ পাওয়া

মদ, গাঁজা, জুয়ার ঠেক ভাঙচুর

জুলাই ২৫, ২০১৬

মদ, গাঁজা, জুয়ার ঠেক ভাঙচুর

বিশ্বজিৎ দেবনাথ/

উত্তর ২৪ পরগনা জেলার প্রায় প্রতিটি থানা এলাকায় চলে বেআইনি মদ, গাঁজা, জুয়ার ঠেক । সব জেনেও পুলিশ চুপ। কারন, হয়তো তাদের মাসোহারা আসে। আর ফল ভোগ করতে হয় এলাকাবাসিকে । বিকেলের পরে মহিলাদের রাস্তায় বেরোনো ভারি সমস্য। এর কোনো প্রতিকার নেই ? আছে, তবে সব এলাকাতে নয় ।

আজ শুরু হলো বারাসাতে । এলাকায় মদ, গাঁজা ও জুয়ার ঠেক তুলে দিতে প্রশাসনের পাশে এসে দাঁড়ালেন INTTUC-র হকার্স অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যরা। আজ সকালে বারাসত স্টেশন সংলগ্ন এলাকায় ঠেকে ভাঙচুর চালান সংগঠনের সদস্যরা।

স্থানীয় সূত্রের খবর, বারাসতের ১২ নম্বর রেলগেটের কাছে দীর্ঘদিন ধরেই চলছিল এই ঠেক । সেখানে রমরমিয়ে চলত মদ, গাঁজা, জুয়ার আড্ডা। তার সঙ্গে সঙ্গে এলাকার মেয়েদের উদ্দেশে পুরোদমে কটুক্তিও চলত বলে অভিযোগ । এলাকার মহিলারা রীতিমতো ভয় পেতেন ওই পথ দিয়ে যাওয়া আসা করতে । রাতই হোক বা দিন, সবসময়ই চলত দুষ্কৃতীদের এই আড্ডা । INTTUC-র হকার্স অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যরা কয়েকবার তাদের এই অসামাজিক কাজকর্ম বন্ধ করতে নির্দেশ দিলেও, তাদের কথায় কর্ণপাতও করা হয়নি বলে অভিযোগ। গতকাল রাতে তাদের সতর্ক করা সত্ত্বেও ঠেকটি তোলা হয়নি। আজ সকালে INTTUC-র হকার্স অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যরা সেখানে গিয়ে ঠেক ভাঙচুর করে। ভেঙে দেওয়া হয় দুষ্কৃতীদের বসার জায়গা থেকে অন্যান্য জিনিসপত্র। উদ্ধার করা হয় বস্তাভর্তি সাট্টার কাগজ ।

এবিষয়ে বারাসত থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। তবে পুলিশের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে । এ বিষয়ে বারাসাত এলাকার এক প্রবীন বাসিন্দা রাজা সেন ও রবিন বিশ্বাস বলেন, পুলিশকে জানিয়ে আজকাল সমস্যার সমাধান হয়না, বরং বাড়ে। পুলিশকে এই বিষয়ে বারবার অভিযোগ জানালেও কেনো লাভ হয়নি। হকার্স অ্যাসোসিয়েশন যেটা করেছে খুব ভালো করেছে । এই রকম রাজ্যের সব জায়গাতে হওয়া উচিত ।

তবে হাবড়া থানা এলাকাতে রোজ মাতাল ধোরে হাজতে ভরলেও ভাঙা হয়না ঠেক । তাই ব্যাবসা চলছে রমরমিয়ে। বলি হচ্ছে পুলিশের কাছে বেচারা অসহায় মাতাল গুলি। একই রূপ বনগাঁতেও, এখানে একটু আলাদা। নতুন SDPO সাহেব অনিল কুমার রায় জয়েন্ট করার পর মদ, গাঁজা কিছুটা বন্ধ হলেও বুক ফুলিয়ে চলছে শাট্টা ও জুয়ো। এদিক থেকে বাদুড়িয়া অনেকটাই আলাদা । এলাকার যুবকরা কয়েক ধরনের বিষাক্ত আঠার নেশা করে অনেক শাফল্য অর্জন করেছে,তাও আবার পুলিশের রাখা নজরের মধ্যেই । নেশার রঙ্গমঞ্চটা উওর ২৪ পরগনাতে প্রায় শক্তপোক্ত।

কলকাতা/২৫শে জুলাই, ২০১৬ ইং