বৃহস্পতিবার  ২৬শে এপ্রিল, ২০১৮ ইং  |   বৃহস্পতিবার  ১৩ই বৈশাখ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

এইমাএ পাওয়া

মদন মিত্রের জন্য চোখ থেকে জল বেরিয়ে আসে-কবির সুমন

জুলাই ২১, ২০১৬

কবির সুমন

বিশ্বজিৎ দেবনাথ/ 

তিনি আজও আছেন মানুষের মনে, যার জন্য নেমে আসে কতো মানুষের চোখে জল সে আর কেউ নন, প্রাক্তন পরিবহন মন্ত্রী মদন মিত্র । মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দ্বিতীয় ইনিংস |সরকারে ফের এসে ‘২১ জুলাই’ উদযাপন|মন্ত্রী, আমলাদের সঙ্গে নিয়ে শহিদ দিবস তথা ‘শহিদ তর্পন’ অনুষ্ঠান আজ। জনস্রোত, অনুরাগীদের জনজোয়ার |২১ জুলাই মঞ্চ থেকে তৃণমূল কংগ্রেস তথা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জয়গান! আর এরই মাঝে কবীর সুমনের বক্তৃতায় উঠে এলেন মদন মিত্র ! অনুষ্ঠানে না থেকেই, কবীর সুমনের কথার মধ্যে দিয়ে নিজের উজ্জ্বল উপস্থিতি জানালেন মদন মিত্র !

২১ জুলাইয়ের মঞ্চে একেবারে অন্যভাবে, অন্যরকম বক্তব্যে ধরা দিলেন প্রাক্তন সাংসদ কবীর সুমন | মঞ্চে উঠে গানও গাইলেন তিনি।আর বক্তৃতায় টেনে আনলেন মদন মিত্রকে।শহিদ দিবসের মঞ্চ থেকে কবীর সুমন বললেন, ‘আজকের দিনটাতে মদন মিত্রকে খুব মিস করছি।আমার মনে আছে এর আগের বছর ২১ জুলাইতে মদন মিত্র দায়িত্ব নিয়ে প্রত্যেক মন্ত্রীকে বাড়িতে পৌঁছে দিয়েছিল।মদনের মতো মানুষ খুব কম হয়।আশা করি মদন মিত্র বিতর্ক থেকে মুক্তি পাবেন।আমার হাতে তো কিছু নেই । আমি পরমেশ্বরের কাছে শুধু প্রার্থনা করতে পারি । আর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে শুধু বলতে পারি। আশা করি মদন দ্রুত মুক্তি পাবে ।

২১ জুলাইয়ের মঞ্চ থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতার সুখ্যাতি করতেও ভুললেন না কবীর সুমন । স্পষ্টই জানালেন তিনি, ‘উন্নয়ন নয়, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কর্তব্য পালন করছে । মানুষের টাকা একেবারে ঠিক কাজে লাগাচ্ছে তিনি। বাংলার ভালো কীসে হবে মমতা তা জানে।

দেশ-দশের মানুষ বলছে দ্বিতীয় ইনিংসে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আরও বেশি প্রত্যয়ী | আরও বেশি দৃঢ় | আরও শক্ত হাতে তিনি হাল ধরেছেন বাংলার | সেই আভাসটাই ফের পাওয়া গেল ২১ জলুাই তৃণমূলের শহিদ দিবসে | উপচে পড়া অনুরাগীদের ভিড় | জনস্রোত | আর তৃণমূল কংগ্রেস তথা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জয়জয়কার |

বিপুল ভোটে জিতে দ্বিতীয়বারের জন্য রাজ্যে ক্ষমতা ধরে রাখা | তারপরও হয়নি কোনও বিজয় উৎসব| এবার তাই শহিদ তর্পণের মধ্যে দিয়েই, ২১ জুলাই কার্যত বিজয় উৎসব পালন করতে চলেছে তৃণমূল কংগ্রেস | তৃণমূল সরকার দ্বিতীয়বার ক্ষমতায় আসার পর প্রথম শহিদ দিবস।

ত্রিস্তরীয় বিশাল মঞ্চ । মঞ্চের তিনটি অংশে বসবেন বিভিন্ন নেতা-কর্মী ও অতিথিরা | মঞ্চের নীচে প্রথামতোই থাকছে শহীদ বেদি। মঞ্চের ডানদিকে মূল অংশে দাঁড়িয়েই বক্তৃতা দেবেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় । দ্বিতীয় অংশে থাকবেন শহিদ পরিবারের সদস্যিরা | মূল মঞ্চকেই ঘিরে রয়েছে ৩০০-রও বেশি সিসিটিভি | সমর্থকরা যাতে দূর থেকে সমস্ত সভা ভাল করে দেখতে পান, তার জন্য লাগানো হয়েছে জায়ান্ট স্ক্রীন । মমতা কর্মিদের আরও একটা কথা ভালো করে বুঝিয়ে দেন বক্তব্যের মধ্য দিয়ে যে, দুর্নিতিকে প্রশ্রয় দেওয়া হবেনা। কেউ করলে তাকে শাস্তি পেতে হবে |মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্য সুধু মানুষের জন্য কাজ করতে হবে তারাই সব।

কলকাতা/ ২১শে জুলাই, ২০১৬ ইং