বুধবার  ২৫শে এপ্রিল, ২০১৮ ইং  |   বুধবার  ১২ই বৈশাখ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

এইমাএ পাওয়া

ভাঙ্গায় সাংবাদিক ও ওসির বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা

জুন ৩০, ২০১৬

মিথ্যা মামলা

গত(১৭ জুন) শুক্রবার ভাঙ্গায় ভুমিদুস্য ও কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী ডাল মিজান আটক শিরোনামে প্রথমে আমার ফরিদপুর ডট কমসহ কয়েকটি অনলাইন পত্রিকায় হাজতে বন্দি থাকা অবস্থায় ছবিসহ প্রকাশিত হয়।

পরদিন (১৮ জুন) একই সংবাদ ই-বাংলাপত্রিকা ডট কমে ছবিসহ প্রকাশিত হলে ভাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ মো: মিজানুর রহমান এবং ই-বাংলাপত্রিকা ডট কম এর প্রকাশক মোহাম্মদ নাজমুল হাসান, সম্পাদক মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, নির্বাহী সম্পাদক গোলাম মোরশেদ ও ফরিদপুর ব্যুরো চীফ বিপ্লব কুমার দাস শাওন মিথ্যা মামলার শিকার হন ।

 ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার ভাঙ্গা হাসপাতাল মোড় এলাকা থেকে (১৭ জুন) শুক্রবার দুপুরে ভাঙ্গা থানা পুলিশ বিশেষ অভিযান চালিয়ে ভুমিদুস্য ও কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী মিজানুর রহমান ওরফে ডাল মিজান (৩৫) কে আটক করেছে । সে উপজেলার কাপুড়িয়া সদরদী গ্রামের কাসেম মোল্লা ওরফে ডিসপোট কাসেমের পুত্র। ডাল মিজানকে আটকের সংবাদে এলাকার সাধারণ মানুষের মাঝে স্বস্তি ফিরে এসেছে। তার বিরুদ্ধে মাদক ব্যবসা জমি দখল সহ, ইয়াবা ব্যবসার এলাকায় ব্যাপক অভিযোগ রয়েছে। ইতিপূর্বে ডাল মিজান পুলিশ ও র‌্যাবের হাতে একাধিক বার গ্রেফতারও হয়েছে।

পুলিশ ও এলাকা সুত্রে জানা যায়, মিজানুরের বিরুদ্ধে এলাকায় জমি দখল সহ মাদক ব্যবসার অভিযোগ রয়েছে । এই জন্য পুলিশের হাতে সে গ্রেফতার হয়।

এলাকাবাসী অভিযোগ করেন , মাদক ব্যবসা করে ডাল মিজান গাড়ী বাড়ি করে প্রচুর টাকার মালিক হয়েছে। বালির গাড়ীতে করে মাদক পাচার করে বলে অভিযোগ রয়েছে।

এ ব্যাপারে ভাঙ্গা থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ মিজানুর রহমান জানান , পুলিশ অভিযান চালিয়ে মিজানকে আটক করেছে। তার বিরুদ্ধে মাদক ব্যবসার অভিযোগ শোনা যাচ্ছে । তাকে ব্যপক জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

এরই জের হিসেবে জামিনে এসে মিজান জনৈক মুখোশধারী এক সাংবাদিকের ছলা পরামর্শে ভাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ মো: মিজানুর রহমান এবং ই-বাংলাপত্রিকা ডট কম এর প্রকাশক মোহাম্মদ নাজমুল হাসান, সম্পাদক মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, নির্বাহী সম্পাদক গোলাম মোরশেদ ও ফরিদপুর ব্যুরো চীফ বিপ্লব কুমার দাস শাওন এর বিরুদ্ধে ফরিদপুর চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে ৫ কোটি টাকার মানহানির মিথ্যা মামলা দায়ের করে।

ফরিদপুরের ২ নং আমলী আদালতের বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রিট ফয়সাল আল মামুন মামলাটি অধিকতর তদন্তপূর্বক প্রতিবেদন আগামী ৮ আগষ্ট’২০১৬ইং ্এর মধ্যে দাখিল করতে ভাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে নির্দেশ দেন। মামলা নাম্বার সিআর-১৭৪/২০১৬ ইং।

উল্লেখ্য যে, মিজানের  ছবিটি আমার ফরিদপুর ডট কম থেকে নেয়া হয়েছে।

বিপ্লব কুমার দাস (শাওন),ব্যুরো চীফ (ফরিদপুর)-৩০/০৬/১৬ইং