শুক্রবার  ২৭শে এপ্রিল, ২০১৮ ইং  |   শুক্রবার  ১৪ই বৈশাখ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

এইমাএ পাওয়া

নারায়ণগঞ্জে পুলিশ ও ব্যবসায়ী হত্যা ঘটনাস্থল পরিদর্শন অতিরিক্ত ডিআইজির

আগস্ট ৬, ২০১৬

নারায়ণগঞ্জ

এমরান আলী সজীব/ 

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে মতিন (৪৮) নামের এক পান ব্যবসায়ী ও পুলিশ সদস্য আরিফ হত্যার ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, সুশীল সমাজ, সাংবাদিক এবং এলাকাবাসীর সাথে মতবিনিময় করেছেন ঢাকা রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি (প্রশাসন) মোহাম্মদ আলী। দুটি হত্যার প্রকৃত ঘটনা জানতে শনিবার সকাল ১১ টায় থেকে দুপুর২ টা পর্যন্ত রাইজদিয়া এলাকায় এসে এ মতবিনিময় করেন।

ঢাকা রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি (প্রশাসন) মোহাম্মদ আলী এসময় রাইজদিয়া গ্রামসহ এলাকাবাসিদের গণগ্রেফতার না করার আশ্বাস দিয়ে সকলকে যার যার বাড়িতে থাকার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, যারা মূল অভিযুক্ত তদন্ত করে শুধুমাত্র তাদেরকেই আইনের আওতায় আনা হবে। সাধারণ কাউকে কোন প্রকার হয়রানি করা হবেনা। মতবিনিময় সভায় অতিরিক্ত ডিআইজি স্থানীয়দের কাছে মতামত জানতে চাইলে উপস্থিত কয়েকশত নারী-পুরুষ সকলেই নিহত মতিনকে পান ব্যবসায়ী ও ভালো মানুষ হিসেবে জানে বলে অবহিত করেন। পরে এলাকায় কমিউনিটি পুলিশ ও মাদক সংশ্লিষ্টদের বিষয়ে জানতে চাইলে মাদক ব্যবসা নিয়ন্ত্রনে পুলিশের ভূমিকা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে কমিউনিটি পুলিশের কোন কার্যক্রম পৌরসভা এলাকায় নেই বলেও জানানো হয়। তাছাড়াও এলাকাবাসি এমনকি সোনারগাঁও থানার কমিউনিটি পুলিশের সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা ওসমান গনিও সাদা পোষাকে তল্লাশী করার নামে পুলিশ সাধারণ মানুষকে হয়রানি করার প্রমান উত্থ্যাপণ করেন। এ সময় থানা পুলিশের বিভিন্ন কর্মকান্ড নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা করে সুশীল সমাজ জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিক ও এলাকাবাসী বক্তব্য দেন। রাইজদিয়া এলাকায় দুটি হত্যাকান্ডের ঘটনায় ঢাকা রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি (প্রশাসন) মোহাম্মদ আলীর ঘটনাস্থল পরিদর্শনের সময় তার সাথে ছিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) ও হত্যা ঘটনার তদন্ত কমিটির প্রধান মতিয়ার রহমান, সহকারি পুলিশ সুপার (বি-সার্কেল) ফোরকান শিকদার, সোনারগাঁও থানার অফিসার ইনচার্জ মঞ্জুর কাদেরসহ পুলিশের বিভিন্ন শ্রেণীর কর্মকর্তাবৃন্দ। তাছাড়াও মতবিনিময় সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন সোনারগাঁ থানা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা সুলতান আহম্মেদ মোল্লা বাদশা, থানা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ডেপুটি কমান্ডার ওসমান গণি, পৌরসভার সংরক্ষিত মহিলা কমিশনার জায়েদা আক্তার মনি প্রমূখ। পরে পৌরসভা তথা সোনারগাঁওয়ের আইনশৃঙ্খলা উন্নতিকল্পে সকলের ঐক্যবদ্ধ সহযোগিতা কামনা করা হয় পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে।

প্রসঙ্গত, বুধবার বিকেলে সোনারগাঁও থানা পুলিশের এএসআই ফখরুল ইসলাম কনষ্টেবল আরিফকে সাথে নিয়ে সাদা পোষাকে রাইজদিয়া এলাকায় অভিযান চালায়। পরে মাদক ব্যবসায়ী আখ্যা দিয়ে পান ব্যবসায়ী মতিনকে ধাওয়া করে পানিতে ডুবিয়ে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়। পুলিশের এমন আচরণে এলাকাবাসী ক্ষুদ্ধ হয়ে কনষ্টেবল আরিফকেও হত্যা করে।
নারায়নগঞ্জ সংবাদদাতা/৬ই আগস্ট, ২০১৬ ইং