শুক্রবার  ২৭শে এপ্রিল, ২০১৮ ইং  |   শুক্রবার  ১৪ই বৈশাখ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

এইমাএ পাওয়া

ঝালকাঠি জেলাজুড়ে মুগ ডালের বাম্পার ফলন

জুন ২৯, ২০১৬

মুগ ডালের বাম্পার ফলন

ঝালকাঠি জেলায় এবছর মুগ ডালের বাম্পার ফলন হয়েছে। লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৩৩০ হেক্টরে আবাদ বেশি হয়েছে।

জেলার ৪টি উপজেলায় এ বছর ১৪৬০ হেক্টরে মুগডালের আবাদ লক্ষ্যমাত্রা ছিল এবং আবাদ হয়েছে ১৭৯০ হেক্টরে। উৎপাদন হেক্টর প্রতি দেড় মেঃ টন। ভাল ফলন পাওয়ায় কৃষকরা লাভবান হয়েছে। বিশেষ করে বাড়ি ১৪ জাতের আবাদ সম্প্রসারণ বেশি হয়েছে। জেলার উপজেলাগুলির মধ্যে নলছিটি উপজেলায় লক্ষমাত্রা ৪০০ হেক্টর ছাড়িয়ে ৬০০ হেক্টরে এবং কাঠালিয়া উপজেলায় ২৩৮ হেক্টর লক্ষমাত্রার ছাড়িয়ে ২৮০ হেক্টরে আবাদ হয়েছে।

জেলার কাঁঠালিয়া উপজেলার কিছু অংশে বেরিবাধ নির্মান হওয়ায় সেখানে রবি মৌসুমে পতিত থাকা জায়গায় মুগডালের চাষ হয়েছে। এ সকল এলাকায় বেরিবাধ না থাকায় রবি মৌসুমে ফসল তোলার পূর্বে নদীর পানিতে ফসল বার বার মার খাওয়ায় কৃষকরা চাষাবাদ ছেড়ে দিয়েছিল।

কৃষি বিভাগ দাবি করেছে, এবছর লক্ষমাত্রা ছাপিয়ে মুগডালের আবাদ বেশি হওয়ায় জেলায় স্থায়নীয় চাহিদা পূরণ হয়ে উদ্বৃত্ত জেলা হিসেবে পরিনত হয়েছে।

মুগ ডালের উৎপাদন হেক্টর প্রতি দেড় মে. টন ছাড়িয়েছে। বাড়ি ১৪ জাতের মুগডালের দানা এক সময় এই অঞ্চলে সোনা মুগ ডালের মত ছোট আকারের দানা ছিল। তবে স্থানীয় জাত হওয়ায় তার উৎপাদন হেক্টর প্রতি ১ মেঃ টনের নিচে ছিল। নতুন উদ্ভাবিত বাড়ি ১৪ জাতের উৎপাদান বেশি হওয়ায় কৃষি বিভাগের মাধ্যমে এর আবাদ সম্প্রসারণ করা হয়েছে।

ঝালকাঠি জেলার কাঁঠালিয়া উপজেলার শৌলজালিয়া ইউনিয়নে বেরিবাধ নির্মান করা হয়েছে। এই ইউনিয়নের বেরিবাদের আওতায় রঘুরচরে প্রায় ১শএকর জায়গায় ২ শতাধিক কৃষক অনেক দিন পর আবার মুগডালের বাম্পার ফলন দেখছেন। কৃষকরা ফলন আসার পরে ৩ ধাপে মুগ ডাল উত্তোলন করবেন।

সুতীর্থ বড়াল,ঝালকাঠি জেলা প্রতিনিধি/২৯শে জুন, ২০১৬ ইং