শুক্রবার  ২৭শে এপ্রিল, ২০১৮ ইং  |   শুক্রবার  ১৪ই বৈশাখ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

এইমাএ পাওয়া

ঝালকাঠিতে ছেলে-মেয়েকে গলায় ফাঁস দেয়ার পরে মায়ের আত্মহত্যা ,ভাগ্যক্রমে বেঁচে গেল মেয়ে

জুলাই ২৩, ২০১৬

আত্মহত্যা

সুতীর্থ বড়াল/
রাজাপুরে স্বামীর সাথে অভিমান করে শিশু ছেলে-মেয়ের গলায় ফাঁস দেয়ার পর এক মা আত্মহত্যা করেছে।তবে ভাগ্যক্রমে বেঁচে গেছে মেয়ে প্রথম শ্রেণির ছাত্রী চাঁদনী আক্তার (৬)।নিহত মা ছেলে হলেন, শিউলী বেগম (৩০) ও তার চার বছরের ছেলে ইউসুফ।

শনিবার বিকেলে জেলার রাজাপুর উপজেলার দক্ষিণ আঙ্গারিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে ।ঘটনাস্থল থেকে ফিরে ঝালকাঠি অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আব্দুর রকিব ঝালকাঠি সময়কে বলেন,শনিবার দুপুরে ঢাকায় থাকা বাস ড্রাইভার স্বামী দেলোয়ার হোসেনের সাথে মোবাইল ফোনে শিউলীর ঝড়গা হয়।এরপর বিকেলে ঘরের দরজা বন্ধ করে আসবাপত্র ভাঙচুর করেন শিউলী। পরে মেয়ে চাঁদনী ও ছোট ছেলে ইউসুফকে ঘরের স্লিং ফ্যানের সাথে ওড়নায় গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলিয়ে দেন মা।পরে নিজেও ওই ফ্যানের সাথে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন।এসময় মায়ের সাথে প্যাচিয়ে থেকে ভাগ্যক্রমে বেঁচে যায় মেয়েটি। পরে মেয়েটির চিৎকারে এলাকাবাসী ছুটে এসে ঘরের চাল খুলে ভিতরে প্রবেশ করে সাবইকে উদ্ধার করে।তবে স্থানীরা এ সময় মেয়েটিকে জীবিত উদ্ধার করতে পারলেও মা ও ছেলেকে মৃত অবস্থায় পান।

ময়না তদন্তের জন্য নিহতদের মরদেহ ঝালকাঠি সদর হাসপাতালের মর্গে আনা হয়েছে।এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে, বলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আব্দুর রাকিব।
ঝালকাঠি প্রতিনিধি/২৩শে জুলাই, ২০১৬ ইং