মঙ্গলবার  ১৭ই অক্টোবর, ২০১৭ ইং  |   মঙ্গলবার  ২রা কার্তিক, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

এইমাএ পাওয়া

চরভদ্রাসনে পদ্মা নদীর ভাঙন অব্যাহত আতঙ্কিতকয়েকটি গ্রামের হাজারো পরিবার

সেপ্টেম্বর ৮, ২০১৬

পদ্মা নদীর ভাঙন অব্যাহত

।।বিপ্লব কুমার দাস (শাওন)/ফরিদপুর প্রতিনিধি।।

ফরিদপুরের চরভদ্রাসন উপজেলায় পদ্মা নদীর ভাঙন অব্যাহত থাকায় আতঙ্কে রয়েছে কয়েকটি গ্রামের হাজারো পরিবারের মানুষ। চলতি বর্ষা মৌসুমে নদীর পানি কমার সাথে সাথে উপজেলার সদর ইউনিয়নের এমপি ডাঙ্গী গ্রামের কয়েকটি স্থানে হঠাৎ করে নদী ভাঙ্গন দেখা দেওয়ায় আতঙ্কিত হয়ে পড়ে ঐ এলাকাসহ আরও ৫গ্রামের কয়েক হাজার পরিবারের মানুষ।

জানা যায়, গত এক মাসের অব্যাহত নদী ভাঙ্গনে ঐ এলাকার প্রায় বিশ বিঘা ফসলী জমি নদী গর্ভে বিলিন হয়ে গেছে। নদী ভাঙনের বিষয়ে সদর ইউপি চেয়ারম্যান মোঃআজাদ খান বলেন গত এক মাস ধরে এমপি ডাঙ্গী এলাকায় নদী ভাঙন অব্যাহত রয়েছে। গত দুই সপ্তাহ আগে শংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষ ঐ স্থানের ভাঙন এলাকার কিছু অংশে বালুর বস্তা ফেলায় সাময়ীক ভাবে নদী ভাঙন বন্ধ থাকলেও শনিবারের কয়েক ঘন্টার ভাঙনে প্রায় ৩বিঘা ফসলী জমি নদী গর্ভে বিলিন হয়ে গেছে। চরম হুমকির মুখে রয়েছে এমপিডাঙ্গী জাকেরের শুরা হয়ে ফরিদপুর যাতায়াতের পাকা সড়ক ও পার্শ্ববর্তী গ্রামের হাজারো পরিবারের মানুষ। তিনি বলেন শংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষ দ্রুত নদী ভাঙন প্রতিরোধে ব্যাবস্থা গ্রহন না করলে উপজেলার এমপিডাঙ্গী,বালিয়াডাঙ্গী,হাজীডাঙ্গী, মাথাভাঙ্গা,জয়দেব সরকারের ডাঙ্গীর পাশাপাশি সরকারি বেসরকারি বিভিন্ন স্কুল,কলেজ,মসজিদ ও মাদ্রাসা সহ চড়ম হুমকির মুখে রয়েছে চরভদ্রাসন উপজেলা পরিষদ।

উপজেলায় নতুন করে নদী ভাঙন দেখা দেওয়ায় (৪ সেপ্টেম্বর) রবিবার দুপুরে নদী ভাঙন প্রতিরোধের বিষয়ে জানতে চাইলে পাউবোর জেলা নির্বাহী প্রকৌশলী সুলতান মাহমুদ ভাঙন প্রতিরোধে তাদের কিছু সিমাবদ্ধতা রয়েছে বলে জানান।

তিনি বলেন, গত মাসে ঐ এলাকায় নদী ভাঙন দেখা দিলে দুই সপ্তাহ আগে ১৫’শ ব্যাগ বালুর বস্তা সেখানে ফেলে সাময়ীক ভাবে ভাঙন প্রতিরোধে ব্যাস্থা নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু গত শনিবার সন্ধায় ঐ এলাকায় নতুন করে নদী ভাঙনের খবর পাওয়া যায়। সংশ্লিষ্ট দপ্তরের একজন(এসও) ভাঙ্গন কবলিত এলাকা পরিদর্ষন করেছে এবং নদী ভাঙনের বিষয়টি শংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কতৃপক্ষকে জানানো হয়েছে বলে তিনি জানান।
বৃহস্পতিবার ৮ই সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ইং