মঙ্গলবার  ১৭ই অক্টোবর, ২০১৭ ইং  |   মঙ্গলবার  ২রা কার্তিক, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

এইমাএ পাওয়া

সুন্দরগঞ্জে বসতবাড়িতে অগ্নিসংযোগ: মারপিটে আহত-৪

সেপ্টেম্বর ৯, ২০১৬

বসতবাড়িতে অগ্নিসংযোগ

।। মোঃ নুরে শাহী আলম (লাবলু)/সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি।। 

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে বসতবাড়িতে অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে।

বিভিন্ন সুত্রে জানা যায়, শুক্রবার দুপুরে উপজেলার কঞ্চিবাড়ি ইউনিয়নের দুলাল পূর্বপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ঐ গ্রামের মৃত মতি শেখের ছেলে নবীর হোসেন ও পার্শ্ববর্তি মৃত কাবেজ উদ্দিনের ছেলে ফয়জার রহমান গংদের সংঙ্গে ৩ একর ৯০ শতক জমি নিয়ে নবির বাদি হয়ে আদালতে মোকদ্দমা করিলে উভয় পক্ষের শুনানী অন্তেত আদালত বাদি নবিরকে ৩ একর ৯০ শতক জমির ডিগ্রি প্রদান করিয়া পেয়াদার মাধ্যামে জমির দখল দেন। এরই মধ্যে ১ আগষ্ট/২০১৬ কাঠাল পাড়াকে কেন্দ্র করে ফয়জার গংগরা নবির ও তার স্ত্রী আসমাকে মারপিট করেন ও ৭ আগষ্ট/২০১৬ ফয়জার গংগরা আদালতের আদেশ অমান্য করে নবিরের জমিজমা দখল করে নেয়। এছাড়াও তারা নবিরকে দেখা পেলেই হত্যা করার হুমকি দেয়। তখন থেকে ১ মাসের অধিক সময় ধরে নবির বাড়িতে যেতে সাহস পাচ্ছেনা, সে প্রাণ ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে।

এব্যাপারে জেলা প্রশাসক ও জেলা পুলিশ সুপারের নিকট নিরাপত্তা, জমি উদ্ধারের জন্য গত ২৪ আগষ্ট/২০১৬ তারিখে একটি আবেদন করেছেন। নবির আরও জানান এ বিষয়টি নিয়ে ২৪ আগষ্ট/২০১৬ জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে সাপ্তাহিক গণ শুনানীতে উপস্থাপন করেন। এই বিরোধের জের ধরে শুক্রবার জুম্মার নামাজের পূর্ব মহুত্তে নবিরের বসতবাড়িতে ফয়জার গংগরা অগ্নিসংযোগ করে ও মহিলাদের লাঞ্ছিত, মারপিট করেন। আগুন জ্বলতে দেখে পার্শ্ববর্তী জামে মসজিদের মুসল্লীগণসহ স্থানীয়রা এসে আগুন নেভাতে সক্ষম হন। এসময় নবীর হোসেনের স্ত্রী আছমা বেগম, মেয়ে লতিফা খাতুন, বোন মোসলেমা ও মজিরান বেগম আহত হন।

তবে ফয়জার রহমান জানান নবিরের লোকজনেই বাড়িতে অগ্নিসংযোগ করেছে।

সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যান মনোয়ার আলম মাস্টারসহ স্থানীয়রা জানান, দীর্ঘদিন থেকে জমি নিয়ে নবীর হোসেন ও ফয়জার রহমানের মধ্যে বিরোধের জের ধরে নবীর হোসেনের বসতবাড়িতে কে বা কারা আগুন ধরে দিযেছে, তা সঠিকভাবে বলা যাচ্ছে না।
শুক্রবার ৯ই সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ইং