শনিবার  ২৪শে জুন, ২০১৭ ইং  |   শনিবার  ১০ই আষাঢ়, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

এইমাএ পাওয়া

মিসর এঁর প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট হোসনি মুবারকের সাজা বহাল

জানুয়ারি ৯, ২০১৬

মিসর এঁর প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট হোসনি মোবারক

মিসর এঁর অর্থ আত্মসাতের জন্য এবং জনগন কে অত্যাচার এঁর জন্য পদচ্যুত নেতা হোসনি মোবারক ও তাঁর দুই ছেলের ৩ বছরের কারাদন্ড অব্যাহত রেখেসছেন দেশটির সর্বোচ্চ আদালত।

তবে হোসনি মোবারক কে কতদিন এখনও আটক রাখা হবে সে বিষয় এ কোন স্পষ্ট ধারনা দেওয়া হয়নি।

তবে রয়টার্সের খবরে বলা হয়, তারা যদি সাজা ভোগ করেও থাকে তাও আবার তাদের কারাগার এ যেতে হতে পারে।

হোসনি মোবারক এঁর বয়স ৮৭ বছর সে ২০১১ সালে গ্রেপ্তার হওয়ার পর থেকে বেশিরভাগ সময় কাটিয়েছেন সামরিক হসপিটালে।

প্রেসিডেন্ট হোসনি মোবারক

২০১৪ সালে কায়কোর একটি নিম্ন আদালত তার নামে “ক্ষমতায় থাকাকালীন অবস্থায় প্রেসিডেন্ট প্রাসাদ এঁর রক্ষণাবেক্ষণ কাজ এঁর জন্য টাকা নিয়ে তা আত্মসাতের অভিযোগ আনে এবং দোসী সাব্যস্ত করেন” তার মূল্য ১২ কোটি মিসরিও পাউন্ড (১কোটি ৬০ লক্ষ মার্কিন ডলার)এই জন্য তাকে ৩ বছর কারাদন্ড দেওয়া হয়, এবং তার দুই ছেলেকে ৪ বছরের কারাদন্ড দেওয়া হয়।দুই ছেলের নাম আলা ও গামাল।

শীর্ষ আপিল আদালত কোর্ট অব ক্যাসেশন গত বছরের জানুয়ারিতে হোসনি মোবারক ও তাঁর দুই ছেলের দণ্ড বাতিল করেন।এঁর কারন হিসাবে আদালত বলেন যে নিম্ন আদালত যথার্থ রুপে আইনগত পক্রিয়া মানাহয়নি, তবে মামলাটি আবার পুনর্বিচার করতে বলা হয়। এরপর পুনর্বিচার করে আবার শাস্তি দেওয়া হয় ৩ বছরের তার এবং তার দুই ছেলেকে। এই রায় দেওয়া হয় ৯ মে ২০১৫ তে । হোসনি মোবারক ও তাঁর দুই ছেলে এঁর বিপক্ষে আপিল করে সেই আপিল এঁর রায় আজ দেওয়া হল। দেশের শীর্ষ আদালত তাদের আপিল খারিজ করে আগের শাস্তি বহাল রাখল।

৩০ বছর ধরে মিশর এঁর শাসন করে আসছিল এমতাবস্তায় ২০১১ সালে গন আন্দোলন এঁর মুখে তিনি ক্ষমতাচ্যুত হন। তার বিরুদ্ধে ৪ টি মামলা করা হয় তার মধ্য ৩ টি মামলা ২০১৪ সালের নভেম্বর এ প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়েছিল। মামলা ৩ টি অযথা করা হয় ৩ টি মামলা হল বাজারদরের চেয়ে কম দামে ইসরায়েলের কাছে গ্যাস বিক্রি ও ২০১১ সালের আন্দোলনের সময় বিক্ষোভকারীদের হত্যার ষড়যন্ত্র করা ও বিভিন্ন দুর্নীতি।

সর্বশেষ প্রেসিডেন্ট প্রাসাদ এঁর রক্ষণাবেক্ষণ কাজ এঁর জন্য টাকা নিয়ে তা আত্মসাতের অভিযোগ এঁর বিচার অব্যাহত রইল।