শনিবার  ২৪শে জুন, ২০১৭ ইং  |   শনিবার  ১০ই আষাঢ়, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

এইমাএ পাওয়া

নারী ও শিশুদের নিরালস সেবা প্রদান করছেন রহিমা মা ও শিশু স্বাস্থ্য কেন্দ্র

অক্টোবর ১৩, ২০১৬

রহিমা মা ও শিশু স্বাস্থ্য কেন্দ্র

।।রিপন আলি রকি, চাঁপাইনবাবগঞ্জ।।
মা ও শিশুর সুস্থ্য জীবন গড়ে তোলার লক্ষে নিরালস সেবা প্রদান করে আসছেন চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার রহিমা মা ও শিশু স্বাস্থ্য কেন্দ্র। উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নের বেশীরভাগ গ্রামগুলোর অসচেতন ও অদক্ষ্য গর্ভবতী নারীদের সেবা দিয়ে আসছেন স্বাস্থ্য কেন্দ্রটি। স্বাস্থ্য বিষয়ক তথ্য ও প্রাথমিক চিকিৎসা সেবা দিতে ৬ জন দক্ষ নারী হেল্থ মোটিভেটর দিন রাত নিষ্ঠার সহিত কাজ করছেন। প্রতি মাসে ১ বার করে প্রতিটি গর্ভবতী নারীর কাছে গিয়ে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করেন তারা। এছাড়াও রোগীর কোন প্রকার সমস্যা হলে তাৎক্ষনিক নিজ দায়ীত্বে হাসপাতাল নিয়ে গিয়ে চিকিৎসার ব্যবস্থা করে দেন তারা।

এবিষয়ে কথা হয় হেল্থ মোটিভেটর সালমা আক্তারের সাথে, তিনি বলেন আমরা নতুন যে রোগীটির কাছে যায় তাকে আমাদের কাজ সম্পর্কে বলি ও আমাদের স্বাস্থ্য কেন্দ্রের ১’শ টাকা মূল্যের একটি কার্ড দিই। তারপর থেকে রোগীটির পেশার, ওজন, গর্ভে থাকা বাচ্চার অবস্থা নির্ণয় ছাড়াও রোগীর সুস্থতার জন্যে আয়রন ক্যালসিয়ামের ঔষুধ ও শিশুদের পুষ্টিকর খাবার প্রদান করি এবং ক্যাম্পেইনের মাধম্যে বিভিন্ন দিক নির্দেশনামূলক তথ্য দিই।

এব্যাপারে উপজেলার শ্যামপুর ইউনিয়নের হাদিনগর গ্রামের ভুক্তভোগী পপি বেগম, বিনোদপুর ইউনিয়নের লছমানপুর গ্রামের ময়না বেগম ও শাহবাজপুর ইউনিয়নের তেলকুপি গ্রামের সাথী বেগম এবং ফেরদৌসী বেগমের কাছে জানতে চাইলে তারা সকলেই বলেন, আপাগুলো আমাদের বাড়িতে এসে এসে আমাদের বিভিন্ন রকম তথ্য দেন। আমরা কিভাবে চলাফেরা করবো, কোন কোন খাবারগুলো খাবো। এছাড়াও আমাদেরকে সাথে নিয়ে হাসপাতাল যাওয়া, বিভিন্ন রকম ঔষুধ দেওয়া, পেশার, ওজন মেপে দেওয়া সব ধরনের সহযোগিতা করেন ঐ আপাগুলো। শুধু তাই নয় রোগীর যতœ কিংবা যে কোন গুরুত্বপূর্ণ জরুরী অপারেশন করার জন্য তাদেরই আরো একটি প্রতিষ্ঠান সোনালী দিন কুটির শিল্প ও স্বাস্থ্য সমবায় সমিতি থেকে ক্ষুদ্র ঋণ কিংবা আর্থিক সহযোগিতা প্রদান করা হয়। যাতে করে কোন রোগী অর্থের অভাবে বিশেষ ঝুঁকিতে না পড়ে।

এব্যাপারে কথা হয় রহিমা মা ও শিশু স্বাস্থ্য কেন্দ্র ও সোনালী দিন কুটির শিল্প ও স্বাস্থ্য সমবায় সমিতির প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক ডা. রফিকুল ইসলাম নভেল-এর সাথে। তিনি বলেন রোগীদের কল্যানে সেবামূলক কাজই আমাদের কর্তব্য। আমি নিজেই রোগীদের স্বল্প মূল্যে অপারেশন করি ও ফ্রি চিকিৎসা সেবা দিয়ে থাকি। এছাড়াও গ্রামের প্রতিটি গর্ভবতী মা বোনদের কাছে চিকিৎসা সেবা পৌঁচাতে ৬ জন দক্ষ নারী হেল্থ মোটিভেটরদের নিয়ে কাজ করি এবং ভবিশ্যতে মানুষের কল্যানে আরও ভাল কিছু করবার কথা বলেন তিনি।

বৃহস্পতিবার ১৩ই অক্টোবর, ২০১৬ ইং