মঙ্গলবার  ১৭ই অক্টোবর, ২০১৭ ইং  |   মঙ্গলবার  ২রা কার্তিক, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

এইমাএ পাওয়া

ঠাকুরগাঁওয়ের যৌতুকের টাকা না পেয়ে স্ত্রীকে নির্যাতনের প্রধান শিক্ষক গ্রেফতার

সেপ্টেম্বর ৯, ২০১৬

নারী নির্যাতন

।।শরিফুল ইসলাম / ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি ॥

ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলায় যৌতুকের টাকা না পেয়ে স্ত্রীকে নির্যাতনের মামলায় একরামুল হক (৪৫) নামে এক শিক্ষককে বৃহম্পতিবার রাতে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শুক্রবার তাকে জেলে পাঠানো হয়েছে।

একরামুল হক (৪৫) রাণীশংকৈল উপজেলার আমজুয়ান গ্রামের মৃত খলিফর রহমানের ছেলে ও এ,বি ফুলবাড়ী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক।

জানা যায়, একরামুল হকের স্ত্রী উম্মে কুলসুম যৌতুকের টাকা না পেয়ে মারপিটের অভিযোগ এনে স্বামী, শ্বাশড়ি, দেবর ও ননদসহ ৬ জনকে আসামী করে গত ১ জুন ঠাকুরগাঁও নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলার সরেজমিন তদন্তের প্রেক্ষিতে আদালতের বিচারক গ্রেফতারী পরোয়ানা জারী করেন। আসামী পলাতক থাকলে বৃহস্পতিার রাতে পীরগঞ্জ থানা পুলিশের সহযোগিতায় উপজেলার চৌরাস্তা মোড় থেকে শিক্ষক একরামুলকে গ্রেফতার করা হয়। শুক্রবার দুপুরে একরামুল হককে ঠাকুরগাঁও জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে বলে জানান রানীশংকৈল থানার উপ পরিদর্শক রেজাউল আলম।

অভিযোগে জানা যায়, একরামুল হক পেশায় একজন শিক্ষক হলেও তিনি মাদকাশক্ত ছিলেন এবং জুয়াড় খেলে ইতোমধ্যে স্ত্রী’র গয়না ও পৈত্রিক সম্পত্তিসহ অনেক কিছু হারিয়েছেন। ফলে মাঝে মাঝে যৌতুক বাবদ বাবার বাড়ি থেকে টাকা এনে দেওয়ার জন্য স্ত্রী’র উপড় চাপ সৃষ্টি করতো। টাকা এনে দিতে রাজি না হলে প্রকাশ্যে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চালাতো। এতে ইন্দোন জোগাতো একরামুলের মা, ভাই ও বোন। এভাবে নির্যাতন সইতে না পেরে একরামুলের স্ত্রী মেয়েকে নিয়ে বাবার বাড়ি চলে যায়। একরামুল সেখানে গিয়েও নির্যাতন চালালে তার স্ত্রী উম্মে কুলসুম গত ১ জুন ঠাকুরগাঁও নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলার সরেজমিন তদন্তের প্রেক্ষিতে আদালতের বিচারক গ্রেফতারী পরোয়ানা জারী করেন।
শুক্রবার ৯ই সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ইং